রূপালী ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম

আপনি যদি রূপালী ব্যাংক থেকে বিভিন্ন রকমের কার্যক্রম সম্পন্ন করতে চান, তাহলে আপনাকে প্রথমত রূপালী ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম জেনে একাউন্ট তৈরী করে নিতে হবে।

রূপালী ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম সম্পর্কে আজকের এই আর্টিকেলের বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হবে।

রূপালী ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম

যেকোন ব্যাংক একাউন্ট তৈরী করার পূর্বে আপনাকে প্রথমত অ্যাকাউন্ট তৈরি করার ডিটেইল সম্পর্কে অবগত হতে হয়।

এছাড়াও আপনি যদি একটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে চান, তাহলে সেটি বিভিন্ন ক্যাটাগরির মধ্যে তৈরি করতে পারেন।

অর্থাৎ আপনি চাইলেই স্টুডেন্ট একাউন্ট তৈরি করতে পারেন, আপনি চাইলে সেভিংস একাউন্ট তৈরি করতে পারেন, অথবা আপনি চাইলে অন্যান্য বিজনেস একাউন্ট তৈরি করতে পারেন।

এরই ধারাবাহিকতায় রূপালী ব্যাংকে অনেক গুলো ভিন্ন-ভিন্ন ক্যাটাগরির একাউন্ট তৈরি করার সুবিধা রয়েছে। তবে এই সমস্ত একাউন্টের মধ্যে থেকে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য হলো, স্টুডেন্ট একাউন্ট এবং সেভিংস একাউন্ট।

আপনি চাইলেই স্টুডেন্ট একাউন্ট এবং সেভিংস একাউন্ট এর মধ্যে যেকোনো একটি একাউন্ট তৈরী করে নিতে পারেন।

স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্ট তৈরি ডকুমেন্টস এবং খোলার নিয়ম

রূপালী ব্যাংকে আপনি যদি স্টুডেন্ট একাউন্ট তৈরী করে নিতে চান, তাহলে স্টুডেন্ট একাউন্ট তৈরি করার জন্য যে সমস্ত ডকুমেন্টস দিতে হবে সেগুলো নিচে মেনশন করা হলো।

  • যে ব্যক্তি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে চায়, সেই ব্যক্তির শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সর্বশেষ বর্ষের স্লিপ। এছাড়াও আইডি কার্ড থাকলে সেটি দিতে হবে।
  • যদি আইডি কার্ড না থাকে, তাহলে ওই ব্যক্তির জন্ম নিবন্ধন কার্ড সাথে নিয়ে যেতে হবে।
  • যে ব্যক্তি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে চাইবে, তার শিক্ষাগত যোগ্যতা সর্বোচ্চ এইচএসসি হতে হবে। আপনি যদি অনার্স পড়ুয়া হন, তাহলে স্টুডেন্ট অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারবেন না।
  • যে ব্যক্তি অ্যাকাউন্ট তৈরি করবে, সেই ব্যক্তির সদ্য তোলা ২ কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবির প্রয়োজন হবে।
  • নমিনি হিসেবে যাকে নির্বাচন করবেন ওই ব্যক্তির ভোটার আইডি কার্ড এবং এক কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবির প্রয়োজন হবে।
  • একটি একাউন্ট অপেনিং ফর্ম এর প্রয়োজন হবে। যা আপনি এখান থেকে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

যখনই উপরে উল্লেখিত ইনফরমেশনগুলো এবং একাউন্ট অপেনিং ফর্ম হাতে নিয়ে সেটি ফিলাপ করে ব্যাংকে জমা দিয়ে দিবেন, তখন আপনার একাউন্ট তৈরি করার কাজ শুরু হয়ে যাবে।

তবে আপনি যদি এখান থেকে একাউন্ট অপেনিং ফর্ম ডাউনলোড না করেন, তাহলে ব্যাংক থেকে সেটি কালেক্ট করে নিতে পারবেন এবং পরে সেটি ফিলাপ করে নিতে পারবেন।

রূপালী ব্যাংক সেভিংস একাউন্ট ডকুমেন্ট

এছাড়াও আপনি যদি রূপালী ব্যাংকে একটি সেভিংস একাউন্ট তৈরী করতে চান, তাহলে যে সমস্ত ডকুমেন্ট তাদের কাছে দিতে হবে, সেগুলো সম্পর্কে নিচে তুলে ধরা হলো।

  • যে ব্যক্তি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে চায়, সেই ব্যক্তির ভোটার আইডি কার্ড, পাসপোর্ট কিংবা ফটোকপি।
  • যে ব্যক্তি অ্যাকাউন্ট তৈরি করবে, সেই ব্যক্তির সর্বশেষ তোলা দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি।
  • E-tin সার্টিফিকেট থাকলে সেটি দিতে হবে।
  • সর্বশেষ তিন মাসের ব্যাংক স্টেটমেন্ট।
  • ইউটিলিটি বিল কপি।
  • নমিনি হিসেবে যে ব্যক্তিকে নির্বাচন করবেন, সেই ব্যক্তির ভোটার আইডি কার্ড / এবং এক কপি সদ্য তোলা পাসপোর্ট সাইজের ছবি।
  • এবং তারপরে একটি একাউন্ট অপেনিং ফর্ম এর প্রয়োজন হবে। একাউন্ট অপেনিং ফর্ম এখান থেকে ডাউনলোড করে নিন।
  • অতিরিক্ত ইনফর্মেশন হিসেবে আপনার একটি সচল মোবাইলফোন তাদেরকে দিতে হবে, যাতে আপনি এসএমএস ব্যাংকিং রেজিস্ট্রেশন করতে পারেন।

অর্থাৎ এসএমএস-এর মাধ্যমে যাতে তারা আপনাকে ইনফরমেশনগুলো জানিয়ে দিতে পারে, সেজন্য আপনার সচল একটি মোবাইল ফোন নাম্বারের প্রয়োজন হবে।

যখনই আপনি উপরেউল্লিখিত ইনফর্মেশন এবং একাউন্ট অপেনিং ফর্ম ডাউনলোড করে তারপরে সেটি ফিলাপ করে ব্যাংকে নিয়ে যাবেন, তখন আপনার একাউন্ট তৈরি করার কাজ শুরু হয়ে যাবে।

উপরে উল্লেখিত উপায় যে কেউ চাইলে রূপালী ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম জেনে রূপালী ব্যাংক একাউন্ট তৈরী করে নিতে পারবেন।

এখানে আরেকটি বিষয় বলে রাখা ভাল আর সেটি হলো, কিছু কিছু ক্ষেত্রে আপনি যখন একাউন্ট তৈরি করবেন, তখন প্রথমত আপনাকে কিছু টাকা ডিপোজিট করে নিতে হয়।

এক্ষেত্রে সোনালী ব্যাংকে একাউন্ট তৈরি করার ক্ষেত্রে আপনাকে প্রথমত ৫০০ টাকা ডিপোজিট করতে হবে। যেটি আপনার একাউন্টে থাকবে এবং অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে গেলে সেটি আপনি পেয়ে যাবেন।

একাউন্ট খোলার ভিডিও

আর্টিকেল পড়তে পড়তে অস্বস্তি বোধ করলে নিচে থকে ভিডিও দেখে নিতে পরেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top