Tcash code – ট্রাস্ট ব্যাংক মোবাইল ব্যাংকিং কোড

বাংলাদেশ একটি জনপ্রিয় মোবাইল ব্যাংকিং অপারেশন হলো টি ক্যাশ মোবাইল ব্যাংকিং। এর মাধ্যমে আপনি চাইলে মোবাইল ব্যাংকিং সেবা উপভোগ করতে পারবেন। সেজন্য লাগবে- Tcash code

তবে একটি টি ক্যাশ মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট তৈরী করার পরে আপনাকে অবশ্যই সেই অ্যাকাউন্ট রিলেটেড তথ্যগুলো জেনে নিতে হয়।

অর্থাৎ, কিভাবে একাউন্ট চেক করে নিতে হয় এবং অ্যাকাউন্টগুলির আরো যে সমস্ত বিষয়াদি রয়েছে, সেগুলো সম্পর্কে অবগত হতে হয়।

আজকের এই আর্টিকেলের বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হবে, ট্রাস্ট ব্যাংকের মোবাইল ব্যাংকিং সেবা রয়েছে সেই মোবাইল ব্যাংকিং সেবা বা tcash code সম্পর্কে বিস্তারিত।

Tcash code বা ট্রাস্ট মোবাইল ব্যাংকিং কোড

আপনি যদি আপনার মুঠোফোন থেকে আপনার টি ক্যাশ একাউন্ট মেনটেন করতে চান কিংবা ট্রাস্ট ব্যাংক মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট মেনটেন করতে চান, তাহলে সেটি ইউএসএসডি কোডের মাধ্যমে করতে পারবেন।

উদাহরণস্বরূপ, আপনি যখন মোবাইল ব্যাংকিং হিসাবে খ্যাত, অন্যান্য মোবাইল ব্যাংকিং অপারেটর যেমন নগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম জানতে চান, তখন নগদ কোডের প্রয়োজন হয়।

এরই ধারাবাহিকতায়, ট্রাস্ট ব্যাংকের একাউন্ট দেখার কোড হিসেবে যে কোডটি রয়েছে অর্থাৎ ট্রাস্ট ব্যাংক কোড নিচে মেনশন করা হলো।

Tcash code
*201#

উপরে উল্লিখিত কোডটি যখনই আপনি আপনার সিম থেকে ডায়াল করে নিবেন, তখন আপনার একাউন্টে বিস্তারিত তথ্য গুলো দেখে নিতে পারবেন।

অর্থাৎ এই মেনু কোড ডায়াল করার পরে বিকাশে যেভাবে আপনি অন্যান্য ইনফরমেশনগুলো যথাযথভাবে দেখে নিতে পারেন, ঠিক ওইরকম ভাবে এখান থেকে দেখে নিতে পারবেন।

টি- ক্যাশ বিকাশ মোবাইল ব্যাংকিং দিয়ে কি কি করা যাবে?

আপনার কাছে যদি একটি একটি টি-ক্যাশ মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট থেকে থাকে, তাহলে আপনি এই একাউন্ট দিয়ে বিভিন্ন রকমের মোবাইল ব্যাংকিং সেবা উপভোগ করতে পারবেন।

অর্থাৎ যে কোন মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট এ যে রকম সুযোগ-সুবিধা রয়েছে, যেমন বিকাশ মোবাইল ব্যাংকিং, নগদ মোবাইল ব্যাংকিং এর মত  ঠিক একই রকম সুযোগ-সুবিধা ট্রাস্ট ব্যাংক মোবাইল ব্যাংকিং থেকে নিতে পারবেন।

যে সমস্ত সুযোগ-সুবিধা আপনি এখান থেকে যেকেউ এই মোবাইল ব্যাংকিং নিতে পারবেন, সেগুলোর মধ্যে থেকে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি হলঃ

  • অন্য যে কোন একাউন্টে টাকা প্রেরন করতে পারবেন। বা ফান্ড ট্রান্সফার করা যাবে।
  • মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন।
  • অনলাইনে টাকা জমা দিতে পারবেন।
  • টিউশন ফি জমা দিতে পারবেন।
  • টাকা ক্যাশ-ইন করতে পারবেন।
  • বেতন-ভাতা জমা দিতে পারবেন।
  • ইউটিলিটি বিল জমা দিতে পারবেন।
  • জন্মনিবন্ধন কিংবা অন্যান্য সরকারি পোর্টালের বিল জমা দিতে পারবেন।
  • এছাড়াও যেকোন কলেজের ভর্তির ফি সহ আরো অন্যান্য বিষয়াদি এই একাউন্টের মাধ্যমে সম্পন্ন করতে পারবেন।

উপরে উল্লেখিত বিষয়গুলো ছাড়াও আরো বিভিন্ন রকমের বিষয়াদি আপনি চাইলে ট্রাস্ট ব্যাংক মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্টের মাধ্যমে সম্পন্ন করতে পারবেন।

তবে আপনি যদি ট্রাস্ট ব্যাংক মোবাইল ব্যাংকিং কার্যক্রম ভালোভাবে সম্পন্ন করতে চান, তাহলে আপনি চাইলে তাদের মোবাইলে এপ ব্যবহার করতে পারেন।

নিম্নলিখিত লিংক থেকে তাদের মোবাইলে একটি নির্দিষ্ট ডিভাইসের জন্য ডাউনলোড করে নিন এবং তারপরে আপনার অ্যাকাউন্ট ইনফরমেশন দিয়ে লগইন করে নিন।

Download

ট্রাস্ট ব্যাংক মোবাইল ব্যাংকিং কোড সম্পর্কে যে সমস্ত ইনফরমেশন গুলো আপনাকে জানিয়ে দেয়া প্রয়োজন, সেগুলো সম্পর্কে উপরে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হয়েছে।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top