সোনালী ব্যাংক ডিপিএস ৫ বছর মেয়াদের ( বিস্তারিত)

সোনালী ব্যাংকের অনেকগুলো ভিন্ন ভিন্ন রকমের ডিপিএস অ্যাকাউন্ট রয়েছে। যেগুলোর মধ্যে থেকে উল্লেখযোগ্য একটি ডিপিএস অ্যাকাউন্ট হল সোনালী ব্যাংক ডিপিএস ৫ বছর মেয়াদী অ্যাকাউন্ট।

আর আপনি যদি সোনালী ব্যাংকের এই পাঁচ বছর মেয়াদ ডিপিএস অ্যাকাউন্ট ডিলিটেড যাবতীয় তথ্য জেনে নিতে চান, তাহলে এই আর্টিকেলটি শেষপর্যন্ত দেখে নিতে পারেন।

সোনালী ব্যাংক ডিপিএস ৫ বছর সংজ্ঞা

আপনি চাইলে সোনালী ব্যাংকে ৫ বছরের জন্য একটি ডিপিএস অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারবেন এবং এই ডিপিএস অ্যাকাউন্ট তৈরি করার মাধ্যমে আপনি বিভিন্ন রকম সুযোগ সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন।

এই ৫ বছর মেয়াদী অ্যাকাউন্ট তৈরি করার বদৌলতে আপনি যে সমস্ত সুযোগ সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন, সেগুলো রিলেটেড তথ্য নিচ্ছে সম্পূর্ণভাবে আলোচনা করা হলো।

সোনালী ব্যাংক ডিপিএস কারা তৈরি করতে পারবেন?

যে সমস্ত ব্যক্তিবর্গ সোনালী ব্যাংক ডিপিএস এর যে সমস্ত নিয়মকানুন রয়েছে, সেগুলো মেনে নিতে পারবেন এবং মেনে নিতে বাধ্য থাকবেন সে সমস্ত ব্যক্তিবর্গ এই অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারবেন।

এক্ষেত্রে তাদের যে মাসিক কিস্তির সীমা রয়েছে সেই মাসিক কিস্তি আপনাকে পরিশোধ করতে হবে এবং তাদের আরো অন্যান্য যে সমস্ত নিয়ম কানুন রয়েছে সেগুলো মেনে নিতে হবে।

আপনি যদি তাদের সমস্ত নিয়মকানুন মেনে নিতে সক্ষম হন, তাহলে আপনি সোনালী ব্যাংক ডিপিএস অ্যাকাউন্ট তৈরি করার জন্য পরিপূর্ণভাবে উপযোগী।

সোনালী ব্যাংক ডিপিএস ৫ বছর মেয়াদী অ্যাকাউন্ট

সোনালী ব্যাংকে ৫ বছর মেয়াদী ডিপিএস অ্যাকাউন্ট অনেক গুলো ভিন্ন-ভিন্ন ডিপিএস অ্যাকাউন্ট রয়েছে। যেখানে আপনি পাঁচ বছর মেয়াদের জন্য অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারবেন এবং আপনার টাকা জমাতে পারবেন।

সোনালী ব্যাংক ডিপিএস ৫ বছর মেয়াদের যে সমস্ত অ্যাকাউন্ট আপনি তৈরি করতে পারবেন, সেগুলোর নাম নিচে মেনশন করা হলো।

  • সোনালী সঞ্চয় স্কীম। (৫বছর)
  • অনিবাসী আমানত স্কিম। (৫বছর)
  • স্বাধীন সঞ্চয় স্কীম। ( ৫/১০ বছর)

উপরে উল্লেখিত তিনটি ডিপিএস অ্যাকাউন্ট আপনি চাইলে পাঁচ বছর মেয়াদের জন্য তৈরি করতে পারবেন। তবে এখানে স্বাধীন সঞ্চয় স্কিম আপনি চাইলে ৫ এবং ১০ বছর উভয় মেয়াদের জন্য তৈরী করতে পারবেন ।

তাহলে আর দেরি না করে এখনি জেনে নেয়া যাক এই সমস্ত সঞ্চয় স্কিম, অ্যাকাউন্ট তৈরি করার ক্ষেত্রে কিস্তির পরিমাণ কত সেই সম্পর্কে বিস্তারিত।

সোনালী সঞ্চয় স্কীম

আপনি যদি সোনালী ব্যাংক ডিপিএস অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে চান, তাহলে আপনাকে ৫ বছর মেয়াদী ডিপিএস অ্যাকাউন্ট এর মধ্যে যে ডিপিএস অ্যাকাউন্ট প্রথমত আপনাকে হাতছানি দিবে, সেটি হল সোনালী সঞ্চয় স্কীম।

এই ডিপিএস অ্যাকাউন্ট তৈরি করলে আপনাকে প্রতিমাসে ৫০০ টাকা কিস্তি পরিশোধ করতে হবে অথবা তার গুণিতকে যত টাকা আসে তা পরিশোধ করতে হবে পরিশোধ করতে হবে।

এবং আপনি চাইলে প্রতি মাসে সর্বোচ্ছ ১০,০০০ টাকা কিস্তি হিসেবে দিতে পারবেন।

অনিবাসী আমানত স্কিম

এছাড়াও পাঁচ বছর মেয়াদি আরেকটি ডিপিএস অ্যাকাউন্ট অনিবাসী আমানত স্কিম। ডিপিএস অ্যাকাউন্ট আপনি পাঁচ বছর মেয়াদের জন্য তৈরি করতে পারবেন।

আপনি যদি এই ডিপিএস অ্যাকাউন্ট তৈরি করেন তাহলে আপনি প্রতিমাসে বিভিন্ন রকমের এমাউন্টের মধ্যে থেকে পছন্দের একটি এমাউন্ট কিস্তি হিসেবে পরিশোধ করতে পারবেন।

এই ৫ বছর মেয়াদী একাউন্ট এর ক্ষেত্রে মাসিক কিস্তির পরিমাণ, ৫০০০,৬০০০,৭০০০, ৮০০০, ৯০০০, ১০০০০, ১১০০০, ১২০০০, ১৩০০০, ১৪০০০, ১৫০০০ টাকা। আপনি চাইলে এখান থেকে যেকোন একটি রেঞ্জ বেছে নিতে পারবেন।

স্বাধীন সঞ্চয় স্কীম

এছাড়াও ৫ বছর মেয়াদী ডিপিএস অ্যাকাউন্ট এর মধ্যে থেকে আরেকটি ডিপিএস অ্যাকাউন্ট হল, স্বাধীন সঞ্চয় স্কীম।

এই ডিপিএস অ্যাকাউন্ট আপনি ৫ বছর কিংবা ১০ বছর এই দুই সময়সীমার মধ্যে তৈরি করতে পারবেন।

এখানে ডিপিএস অ্যাকাউন্ট তৈরি করার ক্ষেত্রে আপনাকে সর্বপ্রথম, ১,০০০ টাকা জমা রাখতে হবে। এবং তার পরে আপনার পছন্দমত যেকোনো এমাউন্ট প্রতি মাসে কিস্তি হিসেবে জমা রাখতে পারবেন।

সোনালী ব্যাংক ৫ বছর মেয়াদী ডিপিএস নিয়ে আরো কিছু কথা

সোনালী ব্যাংকের ডিপিএস অ্যাকাউন্ট রয়েছে সেই ডিপিএস অ্যাকাউন্ট আপনি টাকা জমানোর বদৌলতে, বিভিন্ন অংকের কড়া সুদ পাবেন। যা সম্পূর্ণভাবে গ্রহণযোগ্য নয়।

অর্থাৎ, সুদ দেয়া এবং নেয়া উভয়ই হারাম। আপনি একাউন্টে যত টাকা জমিয়েছেন, বছর শেষে তত টাকায় তুলে নেয়ার চেষ্টা করবেন। এতে করে আপনার টাকা পবিত্র থাকবে এবং টাকার মধ্যে অন্যরকম বারাকাহ উপভোগ করতে পারবেন।

আশা করি, সোনালী ব্যাংক ৫ বছর মেয়াদী ডিপিএস অ্যাকাউন্ট রয়েছে, সেই রিলেটেড যাবতীয় তথ্য জেনে নিতে পেরেছেন।

এছাড়াও আপনি যদি সোনালী ব্যাংক রিলেটেড আরো বিস্তারিত তথ্য জেনে নিতে চান, তাহলে নিম্নলিখিত আর্টিকেলটি দেখে নিতে পারেন।

জেনে নিনঃ সোনালী ব্যাংক ডিপিএস এর আদ্যোপান্ত

       

নিত্যনতুন ব্যাংকিং রিলেটেড ভিডিও দেখতে চান?

উচ্চমানের ব্যাংকিং রিলেটেড ভিডিও পেতে আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করে সাথে থাকুন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top