সোনালী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম ( ভিডিওসহ)

সোনালী ব্যাংক থেকে আপনি যদি একটু ইচ্ছা খুব সংগ্রহ করেন তাহলে সোনালী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম সম্পর্কে আপনাকে জানতে হয়।

সোনালী ব্যাংক চেক লেখার যে নিখুঁত নিয়ম রয়েছে সেই নিয়ম সম্পর্কে আজকের এই পোস্টে আলোচনা করা হবে। এছাড়াও এখানে ছবি দিয়ে ভালোভাবে মেনশন করা হবে যাতে করে আপনি বিষয়টি ভালোভাবে বুঝতে পারেন।

সেজন্য আর দেরি না করে এখনই শুরু করা যাক এবং দেখে নেয়া যাক কিভাবে আপনি চাইলে খুব সহজে সোনালী ব্যাংক চেক বুক লিখতে পারবেন।

সোনালী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম

আপনি যদি সোনালী ব্যাংকের চেক লিখতে চান তাহলে আপনাকে সর্বপ্রথম সোনালী ব্যাংক চেক বুক সংগ্রহ করে নিতে হবে।

এবং যখনই আপনি সোনালী ব্যাংক চেক বুক সংগ্রহ করে নিবেন তখন আপনি নিম্নলিখিত ছবির মত অনেকগুলো পেইজ দেখতে পারবেন। এখান থেকে আপনাকে যেকোনো একটি পেইজ এ নির্ধারিত ইনফরমেশন লিখে চেকটি ব্যবহারের উপযোগী করতে হবে।

সোনালী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম ( ভিডিওসহ)

আপনি যদি উপরে উল্লেখিত ইমেজের দিকে লক্ষ্য করেন তাহলে দেখতে পারবেন এখানে অনেকগুলো ভিন্ন ভিন্ন বক্স রয়েছে যেখানে নির্দিষ্ট ইনফরমেশন দিয়ে ফিলাপ করতে হবে।

সোনালী ব্যাংক চেক ফিলাপ করার নিয়ম

আপনার হাতে যদি চেক বুক থেকে থাকে তাহলে আপনি, এই চেকের মধ্যে অনেকগুলো ভিন্ন ভিন্ন অপশন দেখতে পারবেন, যা আপনাকে যথাযথভাবে ফিলাপ করতে হবে।

Pay to- সেই অপশনটি থেকে আপনাকে সিলেক্ট করে নিতে হবে, আপনি আসলে কাকে পেমেন্ট করছেন? অর্থাৎ আপনি যদি নিজে নিজে টাকা তুলে তাহলে এখানে “নিজ” লিখে দিতে পারেন।

অথবা আপনি যদি অন্য কাউকে পেমেন্ট করেন তাহলে, এখানে অন্য কারো নাম লিখে দিতে পারেন। তবে, প্রায় ক্ষেত্রেই এখানে “নিজ” লিখে ফরমটি ফিলাপ করতে হয়।

Taka: আপনি ব্যাংক থেকে যত টাকা তুলতে চান অর্থাৎ আপনার এই চেকবুক যত টাকা তোলার জন্য তৈরি করা হচ্ছে সেই টাকার পরিমাণ এখানে লিখে দিতে হবে।

বলাবাহুল্য, এখানে যে টাকার পরিমান থাকবে সেগুলো অবশ্যই কথা লিখে দিতে হবে। উদাহরণ স্বরূপঃ ২,০০০ টাকা, এর কথায় লেখা রুপ হবেঃ দুই হাজার টাকা মাত্র।

আপনার নির্ধারিত যত টাকা রয়েছে সেই টাকার পরিমাণ কোথায় লিখে দিতে হবে। এবং লিখে দেয়ার পরে অবশ্যই “=/” এই চিহ্নটি সর্বশেষে বসিয়ে দিবেন।

আপনি যদি এই চিহ্নটি সর্বশেষে বসিয়ে দেন তাহলে, টাকার পরিমান পুনরায় কেউ এডিট করতে পারবেনা।

TK: এবার নিচের দিকের যে বক্সটি রয়েছে, সেই বক্সটিতে আপনি যত টাকা কথায় লিখেছেন সেই টাকার পরিমাণ অংকে লিখে দিতে হবে। অর্থাৎ নাম্বার হিসেবে সেই টাকার পরিমাণ লিখে দিতে হবে।

যেমন দুই হাজার টাকা এর অংকের পরিমাণ হবে “২০০০”। এখানেও সতর্ক করার মত একটি বিষয় রয়েছে আর সেটি হল টাকার পরিমাণ অংকে লেখা দেয়ার পরে অবশ্যই “=/” এই সিম্বল টি বসিয়ে দিতে ভুলবেন না।

কারণ অনেক সময় দেখা যায়, এই অপশনটি কেউ এডিট করে টাকার পরিমাণ বাড়িয়ে নিয়ে আপনাকে ক্ষতির সম্মুখিন করতে পারে।

Ac Holder Signature : এবার যে ব্যক্তিটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করেছেন সেই ব্যক্তি অ্যাকাউন্ট তৈরি করার সময় যে স্বাক্ষর দিয়েছিলেন সেই স্বাক্ষরে এই বক্সটিতে বসিয়ে দিতে হবে।

মনে রাখবেন অ্যাকাউন্ট তৈরি করার সময় আপনি যে স্বাক্ষর দিয়েছিলেন সেই স্বাক্ষরের হুবহু ফরম্যাট এখানে বসিয়ে দিতে হবে।

যদি আপনার চেক বুকের একদম উপরে দিকে তাকান, তাহলে এখানে দেখতে পারবেন ডেট বলে একটি অপশন আছে। এখানে সর্বশেষ যে তারিখ রয়েছে সেই তালিকায় বসিয়ে দিতে হবে।

অর্থাৎ আপনি যে তারিখে টাকা ইস্যু করবেন সেই তারিখ বসিয়ে দিতে হবে।।

আপনি যদি বিষয়টিকে একেবারে ভালোভাবে অনুধাবন করতে চান, তাহলে ফিলাপ কৃত একটি সোনালী ব্যাংক চেক দেখে নিতে পারেন।

সোনালী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম ( ভিডিওসহ)

উপরে উল্লেখিত চেকবুকে বিস্তারিত ভাবে দেখানো হয়েছে আপনি কোথায় কি লিখে ফিলাপ করবেন।

সোনালী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম এর কিছু নিয়মাবলী

সোনালী ব্যাংকের চেক লেখার নিয়ম সম্পর্কে আপনি যদি জানেন তাহলে, ইতিমধ্যে আপনি ব্যাংক চেক লেখার যে সমস্ত নিয়ম রয়েছে সেগুলো সম্পর্কে অবগত হয়ে গেছেন।

তারপরও এখানে যে বিষয়টি বারবার, মেনশন করার মত আর সেটি হলঃ আপনি চেক এর মধ্যে যে টাকার পরিমান লিখবেন, সেই টাকার পরিমাণ লেখার পরে অবশ্যই এবং অবশ্যই “/=” এই চিহ্ন বসিয়ে দিবেন।

এছাড়াও, ব্যাংক চেক লেখার ক্ষেত্রে যে সিগনেচার রয়েছে সেই সিগনেচার হুবহু বসিয়ে দিতে হবে। অর্থাৎ অ্যাকাউন্ট তৈরি করার সময় আপনি যে সিগনেচার দিয়েছিলেন সেই সিগনেচার অনুরূপ বসিয়ে দিতে হবে।

অন্যতায়, আপনি যখন ব্যাংকের চেক নিয়ে যাবেন তখন টাকা তুলতে পারবেন না।

ব্যাংক চেক লেখার ভিডিও

এছাড়াও আপনি যদি ভিডিও দেখার মাধ্যমে ব্যাংক চেক লেখার যাবতীয় নিয়ম সম্পর্কে অবগত হতে চান তাহলে নিম্নলিখিত ভিডিও দেখে নিতে পারেন।

উপরে উল্লেখিত ভিডিওটি দেখে নিলে আপনি চেক লেখার যে সমস্ত ইনফর্মেশন রয়েছে সেগুলো সম্পর্কে জেনে নিতে পারবেন।

যেহেতু যেকোনো ব্যাংকের চেক বুক প্রায় একই রকমের হয়ে থাকে, সেজন আপনি একটি ব্যাংকের চেক বুক ফিলাপ করার নিয়ম শিখে গেলে প্রত্যেকটি ব্যাংকের চেক বুক ফিলাপ করার নিয়ম সম্পর্কে অবগত হতে পারেন।

সোনালী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম কি এবং সোনালী ব্যাংক চেক ফিলাপ করা নিয়ে যে সমস্ত বিষয়াদির রয়েছিল, সেগুলো সম্পর্কে উপরে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

       

নিত্যনতুন ব্যাংকিং রিলেটেড ভিডিও দেখতে চান?

উচ্চমানের ব্যাংকিং রিলেটেড ভিডিও পেতে আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করে সাথে থাকুন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top