বাংলাদেশ থেকে বিদেশে টাকা পাঠানোর নিয়ম

আপনি চাইলে খুব সহজেই বিদেশ থেকে বাংলাদেশে টাকা পাঠাতে পারেন। কিন্তু তখনই ব্যাপারটা সবচেয়ে বেশি কষ্টসাধ্য হয়ে ওঠে যখন আপনি বাংলাদেশ থেকে বিদেশে টাকা পাঠানোর নিয়ম জেনে বাংলাদেশ থেকে টাকা পাঠাতে চাইবেন।

বাংলাদেশ থেকে বিদেশে টাকা পাঠানোর ক্ষেত্রে বিভিন্ন রকমের সীমাবদ্ধতা রয়েছে। আর এজন্যও অনেকগুলো ভিন্ন ভিন্ন কারণ রয়েছে। যার অন্যতম প্রধান একটি কারণ হলো, দেশের অর্থনৈতিক দুরবস্থা ঠেকানো।

তারপরেও কিভাবে আপনি চাইলে খুব সহজেই বাংলাদেশ থেকে বিদেশে টাকা পাঠাতে পারবেন সেই রিলেটেড যাবতীয় ইনফরমেশন এই আর্টিকেলে বিস্তারিতভাবে তুলে ধরা হবে।

বাংলাদেশ থেকে বিদেশে টাকা পাঠানো আদৌ কি সম্ভব?

বাংলাদেশ থেকে বিদেশে টাকা পাঠানো সম্ভব হতে পারে বিভিন্ন উপায়ে। সেক্ষেত্রে আপনি ইচ্ছা স্বাধীন সরাসরি কোন ব্যাংকের মাধ্যমে বাংলাদেশ থেকে বিদেশে টাকা পাঠাতে পারবেন না।

এক্ষেত্রে বিভিন্ন রকমের থার্ড পার্টি সোর্সের মাধ্যমে, লিগাল উপায়ে বাংলাদেশ থেকে বিদেশে টাকা পাঠাতে পারবেন। তবে সেটা অবশ্যই কাউকে সাহায্য করার লক্ষ্যে, বিদেশে টাকা পাচার করার লক্ষ্যে নয়।

আপনি যদি বিদেশে বেগম পাড়াতে একটি অত্যাধুনিক ফ্লাট ক্রয় করার জন্য বিদেশে টাকা পাচার করতে চান, তাহলে এই আর্টিকেলটি আপনার জন্য নয়।

এ আর্টিকেলটি, শুধুমাত্র তাদের জন্য যারা হয়তো তাদের শুভাকাঙ্খী কাউকে টাকা দিয়ে সহায়তা করতে চান। এবং বাংলাদেশ থেকে বিদেশে টাকা পাঠানোর নিয়ম জেনে টাকা পাঠাতে চান।

সর্বোচ্চ কত টাকা বিদেশে পাঠানো যাবে?

একজন ব্যক্তি চাইলে সর্বোচ্চ, ১২ হাজার ডলার বিদেশে পাঠাতে পারবেন। তবে এক্ষেত্রে অবশ্যই আপনার নির্দিষ্ট পাসপোর্ট এর প্রয়োজন হবে।

যদি পাসপোর্ট বেধে আপনি ১২,০০০ ডলার বিদেশে পাঠাতে পারবেন। এখন ১২ হাজার ডলার বাংলার কত টাকা হয়? সেটি আপনি সর্বশেষ হিসাব অনুযায়ী দেখে নিতে পারেন।

এছাড়াও, আপনি যদি একজন ফ্রিল্যান্সার হয়ে থাকে এবং ফ্রিল্যান্সার হিসেবে আপনি যদি বিদেশে থাকা পাঠাতে চান, তাহলে শর্তসাপেক্ষে আপনি চাইলে প্রতি বছরে সর্বোচ্চ ২০ হাজার ডলার পাঠাতে পারবেন।

এছাড়াও, আরো যে সমস্ত নির্দিষ্ট খাত রয়েছে, সেগুলো বেদে টাকার পরিমাণ কমবেশি হতে পারে।

বাংলাদেশ থেকে বিদেশে টাকা পাঠানোর নিয়ম কি?

আপনি যদি বিদেশে টাকা পাঠাতে চান তাহলে আপনাকে প্রথমত এটা নিশ্চিত হয়ে যেতে হবে যে আপনি আসলে কিসের জন্য বিদেশে টাকা পাঠাতে চান?

বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদিত ব্যাংকের মাধ্যমে আপনি চাইলে কয়েকটি নির্দিষ্ট কাজের জন্য বিদেশে টাকা পাঠাতে পারবেন। এবং আপনার প্রয়োজন পরিপূর্ণ করতে পারবেন।

সেজন্য সর্বপ্রথম আপনাকে এটা নিশ্চিত হয়ে যেতে হবে যে আপনি আসলে কিসের জন্য বিদেশে টাকা পাঠাতে চান? যেমন সেটা হতে পারে চিকিৎসার জন্য, লেখাপড়ার জন্য, কিংবা বিদেশে ভ্রমণের জন্য।

অর্থাৎ আপনি যদি আপনার নির্দিষ্ট খাত নির্বাচন করে নিতে পারেন তাহলে বাংলাদেশ থেকে বিদেশে টাকা পাঠানোর কাজটি আরও বেশি সহজ হয়ে যায়।

এছাড়াও বলাবাহুল্য, বাংলাদেশ থেকে বিদেশে টাকা পাঠানোর ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট খাতের জন্য নির্দিষ্ট রকমের অ্যামাউন্ট আপনি পাঠাতে পারবেন। এবং একজন ব্যক্তির পাসপোর্ট বেদে সেই এমাউন্ট কনস্ট্যান্ট বা ধ্রুবক সংখ্যা হয়ে থাকে।

যখনই আপনি এটি নির্বাচন করে নিবেন যে আপনি আসলে কোন খাতের জন্য বিদেশে থাকা পাঠাতে চান, তারপরে আপনি চাইলে বাংলাদেশ ব্যাংকের অধীনস্থ ব্যাংকে এই সম্পর্কে যোগাযোগ করতে পারেন।

তবে এক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই, টাকা পাঠানোর পূর্বে আপনি কোন খাতের জন্য টাকা পাঠাতে চান সেই রিলেটেড ডকুমেন্টের প্রয়োজন হবে।

অর্থাৎ আপনাকে এটি দেখাতে হবে যে আপনি আসলে এই নির্দিষ্ট খাতের জন্য বিদেশে টাকা পাঠাতে চান এবং আপনার এই কার্যসিদ্ধি করতে চান।

সবকিছু যদি ঠিক থাকে তাহলে আপনি বাংলাদেশ ব্যাংকের অধীনস্থ যেকোনো একটি ব্যাংকের মাধ্যমে বিদেশে টাকা পাঠাতে পারবেন। এবং আপনার কার্যক্রম সম্পন্ন করতে পারবেন।

বিদেশে টাকা পাঠানোর আরেকটি উপায়

আপনি হয়তো এই সম্পর্কে অবগত আছেন যে বাংলাদেশের যে সমস্ত মোবাইল ব্যাংকিং রয়েছে সেগুলোর মধ্যে থেকে অন্যতম একটি মোবাইল ব্যাংকিং হচ্ছে বিকাশ।

এবং তারা ইতিমধ্যে পৃথিবীর প্রায় অনেকগুলো দেশে তাদের আউটলেট স্থাপন করেছে। যার মাধ্যমে আপনি চাইলে বিদেশ থেকে বাংলাদেশে টাকা পাঠাতে পারেন কিংবা বাংলাদেশ থেকে বিদেশে টাকা পাঠাতে পারেন।

সেজন্য, যে সমস্ত দেশে ইতিমধ্যে বিকাশ তাদের আউটলেট স্থাপন করে ফেলেছে সেই সমস্ত দেশে আপনি চাইলে নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা পাঠাতে পারবেন।

অর্থাৎ আপনার যদি গুরুতর কোন দরকার থাকে তাহলে আপনি বিকাশের মাধ্যমে সেই কাজটি সম্পন্ন করতে পারবেন। যদি নির্দিষ্ট দেশে বিকাশের কোন আউটলেট ইতিমধ্যে স্থাপন করা হয়ে থাকে।

তবে আমার মতে, সবচেয়ে কম ব্যয়বহুল হলো যেকোনো একটি ব্যাংকের মাধ্যমে বিদেশে টাকা পাঠিয়ে দেয়া। তবে আপনি যদি কম সময়ের মধ্যে টাকা পাঠাতে চান, তাহলে বিকাশের মাধ্যমে সেই কাজটি করতে পারেন।

বাংলাদেশ থেকে বিদেশে টাকা পাঠানোর যে নিয়ম রয়েছে, সেটি উপরের বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হয়েছে। এছাড়াও আলোচনা করা হয়েছে বিকল্প আরেকটি নিয়ম সম্পর্কে।

আশা করি, বাংলাদেশ থেকে বিদেশে টাকা পাঠানোর নিয়ম জেনে নিতে পেরেছেন।

       

নিত্যনতুন ব্যাংকিং রিলেটেড ভিডিও দেখতে চান?

উচ্চমানের ব্যাংকিং রিলেটেড ভিডিও পেতে আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করে সাথে থাকুন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top