ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম ( ভিডিওসহ)

আমাদের মধ্যে অনেকেই রয়েছেন, যারা কিনা ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম জেনে পরিপূর্ণ ব্যাংক চেক লেখার কাজ সন্পন্ন করতে চান।

কেবল ব্যাংকের একটি চেক লেখার মাধ্যমে যে কাউকে এটি দেয়ার পরে, সে চাইলে এই এমাউন্টের টাকা গুলো সহজেই নিয়ে নিতে পারবে বা ব্যাংক থেকে টাকা তুলতে পারবে।

তবে এরকম অনেকেই রয়েছেন যারা কিনা একটি ব্যাংক চেক লেখার সঠিক নিয়ম সম্পর্কে জানেন না, যার কারণে বিভিন্ন রকমের জটিলতার মধ্যে পড়ে যান এবং নানা সময়ে চেক বুক এর পৃষ্ঠা নষ্ট করতে থাকেন।

আজকের এই আর্টিকেলের আলোচনা করা হবে, কিভাবে আপনি চাইলে খুব সহজেই ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম জেনে একটি পরিপূর্ণ ব্যাংক চেক লিখতে পারেন, কোনো রকমের সমস্যা ছাড়াই।

ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম কেনো জানবেন ?

আপনি যদি অন্য যেকোন কাউকে আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা দিতে চান, বা নিজে থেকে টালা তুলতে চান, কিংবা যেকোন একটি অনুষ্ঠানে আপনি অর্থ প্রদান করতে চান, তাহলে চেক লেখার মাধ্যমে অর্থ গুলো খুব সহজেই ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে সেন্ড করে দিতে পারেন।

এক্ষেত্রে আপনি যাকে চেক দিবেন, সেই ব্যক্তি চাইলে ব্যাংক একাউন্ট থেকে সহজেই নির্দিষ্ট পরিমাণে টাকা তুলতে পারবেন। এবং এই টাকাগুলা আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে কাটা যাবে এবং ওই ব্যক্তি সহজেই পেয়ে যাবে।

এই নির্দিষ্ট কারণ ছাড়া আরও অনেক রকমের কারণ হয়েছে, যার কারণে আপনি একটি ব্যাংক চেক লেখার চিন্তা ভাবনা করেন।

ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম কি?

আপনি যদি ব্যাংক চেক লিখতে চান, তাহলে আপনাকে প্রথমত একটি চেকবুক সংগ্রহ করে নিতে হবে। আর আপনি এই চেকবুক ব্যাংক থেকে খুব সহজেই সংগ্রহ করে নিতে পারেন।

যখনই, আপনি চেকবুক সংগ্রহ করে নিবেন তখন আপনি এখানে থাকা যেকোনো একটি পৃষ্ঠা ওপেন করুন এবং সেই পৃষ্ঠায় নিম্নলিখিত স্ক্রীনশটএর মত আপনি একটি পেজ দেখতে পারবেন।

যেখানে আপনার ব্যাংকের ইনফর্মেশন এবং যাকে টাকা দিবেন, সেই ব্যক্তির ইনফর্মেশন দেয়ার মাধ্যমে চেক লেখার কাজ সম্পন্ন করতে পারেন।

ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম সম্পর্কে জেনে নিন

মুলত, উপরে যে চেক এর ইমেজ দেয়া হয়েছে প্রায় প্রত্যেকটি ব্যাংকের চেক ইমেজ একই রকম হবে।

এবার তাহলে জেনে নেয়া যাক, এটি যদি ব্ল্যাংক থাকে অর্থাৎ এখানে যদি কোন কিছু লেখা না থাকে তাহলে আপনি কিভাবে এই চেক ফিলাপ করে নেবেন?

ব্যাংক চেক লেখার সঠিক নিয়ম

যখনই আপনি একটি চেক পেয়ে যাবেন, তখন আপনি এটি ফিলাপ করার জন্য নিম্নলিখিত নির্দেশনাগুলো অনুসরণ করবেন.

Date: যেকোনো চেক এর উপরের দিকের ডানপাশে আপনি Date নামের একটি অপশন পাবেন।

এই অপশনটি থেকে আপনি ভবিষ্যৎ তিন মাসের মধ্যে যেকোনো একটি তারিখ মেনশন করে দিন । মনে রাখবেন, তিন মাসের বেশি সময় যদি হয় তাহলে চেক অবৈধ হয়ে যায়।

তাই ভবিষ্যৎ তিন মাসের মধ্যে যেকোনো একটি তারিখ মেনশন করে দিন, যে তারিখের মধ্যে ওই ব্যক্তি টাকা তুলতে পারবেন।

মনে রাখবেন, চেকে আপনি যে ডেট দিবেন, সেটি ইংরেজিতে এবং পরিপূর্ণ দিন মাস বছর এর সহযোগিতায় লিখবেন।

Pay to : আপনি কোন সংস্থা কিংবা কোন ব্যক্তিকে এই চেক প্রদান করতে চান,সেই ব্যক্তির নাম কিংবা সংস্থার নাম এখানে মেনশন করে দিন। নিজে নিতে চাইলে “Self” লিখে দিন৷

The sum of Taka: কোন ব্যক্তি কিংবা সংস্থাকে আপনি কত টাকা দিতে চান সেই টাকার মান এখানে লিখে দিন। অর্থাৎ আপনি যদি ৫০০০ টাকা দিতে চান, তাহলে ইংরেজিতে সেখানে লিখে দিন “Five Thousands Only

এছাড়াও আপনার পছন্দ অনুযায়ী টাকার পরিমাণ যদি উঠানামা করে, তাহলে সেই পরিমাণ কে ইংরেজিতে এখানে মেনশন করে দিন। একই রকমভাবে নিজের জন্য টাকা নেয়ার ক্ষেত্রে টাকার পরিমান মেনশন করতে পারেন৷

Also Read:  ব্যাংক থেকে ব্যাংকে টাকা ট্রান্সফার কিভাবে করব?

TK: এরপরে বামপাশে আপনি যে টাকার পরিমান লিখেছিলেন, সেই পরিমানের অংকের ইংরেজি রূপ প্রকাশ করে দিন অর্থাৎ সেটি সংখ্যায় প্রকাশ করুন।

এরপরে একদম সর্বশেষ এর চেক এর নিচের অংশের বামপাশের সিগনেচার দেয়ার মত একটি অপশন পাবেন, সেখানে আপনার সিগনেচারটি দিয়ে দিন।

ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম সম্পর্কে জেনে নিন

সিগনেচার দেয়ার কাজ সম্পন্ন হয়ে গেলে যে ব্যক্তি কে আপনি এই চেক দিয়েছেন, সেই ব্যক্তি চাইলে ব্যাংক একাউন্ট থেকে এই সমপরিমাণ টাকা তুলতে পারবেন।

চেক লেখার ভিডিও

অথবা আপনি নিজে থেকে আপনার জন্য টাকা তুলতে পারবেন৷

চেক লেখার সময় সর্তকতা

  • আপনি যখন চেক লিখবেন, তখন একটি সর্তকতা অবলম্বন করবেন৷ সেটি হলো আপনি যখন টাকার অংক দিবেন এবং সেটি যখন অংকে প্রকাশ করবেন তখন টাকার অঙ্ক প্রকাশ করার পরে ” /- “ চিহ্নটি টাকার অংকের পাশে বসিয়ে দিন।
  • এতে করে টাকার নির্দিষ্ট পরিমাণ দেয়ার পরে জালিয়াতি হওয়ার সম্ভাবনা একেবারে কমে আসবে।

কারণ অনেক সময় দেখা যায় আপনি যে টাকার পরিমাণ লিখবেন সেই টাকার পরিমাণ এর পাশে মোটা অংকের টাকার পরিমাণ লিখে দেয়া হয়।

ব্যাংকে চেক জমা করার সময় ফর্মে যে দুটি অংশ থাকে তা খেয়াল করবেন। দুটির একটি ব্যাংকের কাছে ও অন্যটি আপনাকে দেওয়া হবে। আপনাকে দেওয়া ফর্মটি ফেলে দেবেন না। তবে ওই ফর্মটি কিন্তু আপনার চেক জমা করার একমাত্র প্রমাণ। তাই এটি যতনে রাখুন।

এটি হলো মূলত ব্যাংক চেক লেখার সঠিক নিয়ম রয়েছে সেই সঠিক নিয়ম।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top