ডাচ বাংলা ব্যাংক কার্ড সম্পর্কে বিস্তারিত | Dutch Bangla Bank Card

আপনি যদি ডাচ বাংলা ব্যাংক কার্ড নিতে চান কিংবা ডাচ বাংলা ব্যাংকের কার্ড রিলেটেড বিষয়াদি রয়েছে, সেগুলো সম্পর্কে জানতে চান তাহলে এই আর্টিকেলটি দেখে নিতে পারেন।

এই আর্টিকেলের মূলত আলোচনা করা হবে ডাচ বাংলা ব্যাংক কার্ড সম্পর্কে। ডাচ বাংলা ব্যাংকের যতগুলো ক্রেডিট কার্ড, বা ডেবিট কার্ড রয়েছে সেগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে।

ডাচ বাংলা ব্যাংকের কার্ড কতগুলো রয়েছে?

যদি ডাচ বাংলা ব্যাংকের একজন গ্রাহক হয়ে থাকেন তাহলে আপনি চাইলে ভিন্ন ৫ রকমের কার্ড উপভোগ করতে পারবেন।

সমস্ত কার্ড গুলোর মধ্যে থেকে একেকটি কার্ড ব্যবহার করার ক্ষেত্রে, আপনি এক এক রকমের সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন।

যে পাঁচটি ভিন্ন ভিন্ন কার্ড আপনি ডাচ বাংলা ব্যাংক থেকে নিতে পারবেন সেই পাঁচটি কার্ডের যে নাম রয়েছে সেই নাম নিচে মেনশন করা হলোঃ

  • Instant Debit Card
  • VISA Debit Card
  • MasterCard Debit
  • VISA International Debit Card
  • MasterCard International Debit Cards

Instant Debit Card

ডাচ- বাংলা ব্যাংকের এই যে কার্ডটি রয়েছে, সেই কার্ডের মাধ্যমে আপনি চাইলে বাংলাদেশ থেকে যে কোনো রকমের লেনদেন করতে পারবেন।

এই কার্ডটি ব্যবহার করার ক্ষেত্রে প্রথম বছর আপনাকে কোন রকমের ফি দিতে হবে না। অর্থাৎ প্রথম বছর আপনি একদম ফ্রিতে কার্ড ব্যবহার পারবেন।

কিন্তু পরের বছর থেকে আপনাকে প্রতিবছর ভ্যাটসহ ৪৬০ টাকা পে করতে হবে।

VISA Debit Card

ডাচ বাংলা ব্যাংক থেকে আপনি যদি ভিসা কার্ড নিতে চান, তাহলে আপনি চাইলে উপরে উল্লেখিত ভিসা কার্ড নিতে পারেন।

এই কার্ড নেওয়ার জন্য আপনাকে প্রথমত ৮০৬ টাকা পেইড করতে হবে এবং তারপরে প্রতিবছর কার্ড ফি বাবদ ৮০৬ টাকা পেইড করতে হবে।

MasterCard Debit

ডাচ-বাংলা ব্যাংক থেকে মাস্টার কার্ড নেওয়ার ক্ষেত্রে আপনি চাইলে মাস্টার কার্ড ডেবিট নামের যে কার্ড রয়েছে সেই কার্ড নিতে পারেন।

এই কার্ড নেয়ার ক্ষেত্রে আপনাকে প্রথমত ৯২০ টাকা পরিশোধ করতে হবে। এবং তারপরে প্রতিবছরান্তে আপনাকে পরিশোধ করতে হবে ৯২০ টাকা।

এই কার্ড ব্যবহার করার লিমিটেশন অনেক বেশি এবং এই কার্ড ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি চাইলে বিভিন্ন রকমের কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারবেন।

উপরে যে তিনটি কার্ড মেনশন করা হয়েছে সেই তিনটি কার্ড আপনি চাইলে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ব্যবহার করতে পারবেন এবং যেকোন রকমের লেনদেন এই কার্ড ব্যবহার করার মাধ্যমে করতে পারবেন।

এই সমস্ত কার্ড আপনি ইন্টারন্যাশনাল পর্যায়ে ব্যবহার করতে পারবেন না। আপনি যদি ইন্টার্নেশনালি কোন কার্ড ব্যবহার করতে চান, তাহলে নিম্নলিখিত দুইটি কার্ড ব্যবহার করতে পারেন।

ডাচ-বাংলা ব্যাংক ইন্টার্নেশনাল কার্ড

ডাচ বাংলা ব্যাংকের যে সমস্ত ডেবিট কার্ড কিংবা ক্রেডিট কার্ড রয়েছে , সে সমস্ত ডেবিট ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি যদি ইন্টারন্যাশনাল লেনদেন করতে চান, তাহলে নিম্নলিখিত কার্ড ব্যবহার করতে পারেন।

নিচে যে দুইটি কার্ড এর কথা মেনশন করা হবে, সেই দুইটি কার্ড ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি চাইলে খুব সহজেই দেশ-বিদেশের যেকোন রকমের লেনদেন ডেবিট-ক্রেডিট কার্ড এর মাধ্যমে করতে পারবেন।

VISA International Debit Card

এই কার্ড ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি চাইলে দেশের অভ্যন্তরে কিংবা বিদেশি যেকোন ওয়েবসাইট কিংবা যে কোনো রকমের লেনদেন করতে পারবেন।

এই কার্ডে বিভিন্ন রকমের বিদেশি কারেন্সি সাপোর্ট করবে; যার মাধ্যমে আপনি চাইলে সহজেই বিদেশি কারেন্সি আপনার একাউন্টে এড করতে পারবেন।

আপনি যদি এই কার্ডটি ব্যবহার করতে চান, তাহলে প্রতিবছরান্তে আপনাকে ফি দিতে হবে; যার টাকার পরিমাণ হবে প্রায় ১৪৭৬ টাকা৷

যখনই আপনি এই কার্ড আপনার নিজের কাছে নিতে চাইবেন , তখন আপনাকে সর্বপ্রথম ১৪৭৬ টাকা পরিশোধ করতে হবে এবং তারপর প্রতিবছর সমপরিমাণ টাকা ফি হিসেবে দিতে হবে।

আপনি যদি এই কার্ড নেওয়ার জন্য আবেদন করতে চান, তাহলে আবেদন করার জন্য যে ফ্রম রয়েছে, সেই ফরম আপনি চাইলে নিম্নলিখিত লিংক থেকে ডাউনলোড করে নিতে পারেন।

Apply Now

উল্লেখিত লিংক থেকে ফরম ডাউনলোড করে নেয়া হয়ে গেলে, এই ফরম ফিলাপ করে ব্যাংকে জমা দেয়ার মাধ্যমে আপনার নির্দিষ্ট ইনফরমেশন দিয়ে কার্ড নিয়ে নিতে পারবেন।

MasterCard International Debit Cards

আপনি যদি ডাচ-বাংলা ব্যাংক থেকে মাস্টার কার্ড কালেক্ট করে নিতে চান, তাহলে উপরে উল্লেখিত কার্ড কালেক্ট করে নিতে পারেন।

এই কার্ড ডুয়াল কারেন্সি সাপোর্ট করে, যার কারণে আপনি চাইলে এই কার্ড ব্যবহার করার মাধ্যমে ইন্টার্নেশনালি যেকোন রকমের লেনদেন করতে পারবেন।

উপরে আপনি যে ডেবিট কার্ড নিয়েছেন, সেই ডেবিট কার্ড নেওয়ার ক্ষেত্রে যে চার্জ ফি এবং বছরান্তে যে ফি রয়েছে, সেই ফি এর পরিমাণ এই কার্ডের ক্ষেত্রে প্রায় একই।

এই কার্ড নেওয়ার ক্ষেত্রে আপনাকে বছরান্তে ১৪৭৬ টাকা পরিশোধ করতে হবে।

এই কার্ড নেওয়ার জন্য আবেদন করার ক্ষেত্রে আপনাকে নিম্নলিখিত লিংক থেকে ডাউনলোড করে নিতে হবে এবং তার পরে এটি ফিলাপ করে ব্যাংকে জমা দিতে হবে।

Apply Now

ডাচ বাংলা ব্যাংক ইন্টার্নেশনাল কার্ড নেওয়ার রিকোয়ারমেন্ট

ডাচ বাংলা ব্যাংকের যে ইন্টারন্যাশনাল ডুয়াল কারেন্সি সাপোর্টেড কার্ড রয়েছে, সে সমস্ত কার্ড নেওয়ার জন্য আপনাকে কিছু ইনফরমেশন তাদেরকে দিতে হবে।

আপনি যখন ব্যাংকে গিয়ে এই কার্ড আনতে চাইবেন, তখন আপনার কাছ থেকে তারা কিছু ইনফরমেশন চাইবে যে সমস্ত ইনফরমেশন দিলে আপনি কার্ড নিজের করে নিতে পারবেন।

ইনফরমেশন গুলো হলঃ

  • আপনার এক কপি ছবি।
  • আপনার যে পাসপোর্ট রয়েছে, সেই পাসপোর্ট।
  • ন্যাশনাল আইডি কার্ডের ফটোকপি।
  • এছাড়াও e-tin সার্টিফিকেট থেকে থাকলে সেই e-tin সার্টিফিকেট।

উপরে উল্লেখিত ইনফরমেশনগুলো নিয়ে আপনি যখন ব্যাংকে চলে যাবেন, তখন আপনি চাইলে ডাচ বাংলা ব্যাংকের ডুয়াল কারেন্সি কার্ড নিয়ে নিতে পারবেন।

আর, ডাচ বাংলা ব্যাংক কার্ড সম্পর্কে যে তথ্য রয়েছিল সেই তথ্য সম্পর্কে আশা করি আপনি জেনে নিতে পেরেছেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top