ডাচ বাংলা ব্যাংক এজেন্ট ব্যাংকিং রেজিস্ট্রেশন এবং লিমিট |

অন্যান্য সমস্ত এজেন্ট ব্যাংকিং এর মত ডাচ বাংলা ব্যাংক এজেন্ট ব্যাংকিং একটি লাভজনক সুবিধা। যার মাধ্যমে খুব বেশি প্রফিট অর্জন করা সম্ভব।

তবে আপনি যদি ডাচ বাংলা ব্যাংক এজেন্ট ব্যাংকিং এর একজন প্রতিনিধি হতে চান, তাহলে আপনার ক্ষেত্রে কিছু বেঁধে দেয়া রিকোয়ারমেন্ট এর উত্তীর্ণ হওয়া প্রয়োজন হবে।

আর আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে পরিপূর্ণভাবে আলোচনা করা হবে ডাচ বাংলা ব্যাংক এজেন্ট ব্যাংকিং রেজিস্ট্রেশন এবং কিভাবে আপনি একজন এজেন্ট ব্যাংকার হবেন এই সম্পর্কে বিস্তারিত।

ডাচ বাংলা ব্যাংক এজেন্ট ব্যাংকিং এর সুবিধা

ডাচ বাংলা ব্যাংকের অধীনে যে এজেন্ট ব্যাংকিং রয়েছে সেই এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে যে সমস্ত সুবিধা উপভোগ করা যাবে সেগুলো হলোঃ

  • নগদ টাকা সঞ্চয় কিংবা উত্তোলন।
  • যেকোনো অভ্যন্তরীণ রেমিটেন্স বিতরণ।
  • ক্ষুদ্র ঋণ বিতরণ।
  • ইউটিলিটি বিল পরিশোধ।
  • ব্যালেন্স স্টেটমেন্ট দেখা।
  • এটিএম এ টাকা উত্তোলন।
  • নতুন অ্যাকাউন্ট তৈরি করা।
  • মার্চেন্ট পেমেন্ট ইত্যাদি।

উপরে বর্ণনাকৃত সুযোগ সুবিধা ছাড়াও একজন এজেন্ট প্রতিনিধি হিসেবে আপনি আরও বিভিন্ন রকমের সুযোগ সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন।

এছাড়াও আপনি যদি একাউন্টের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করেন, তাহলে এই এজেন্ট ব্যাংকিং একাউন্ট সম্পূর্ণ নিরাপদ এবং নিঃসন্দেহে টাকা লেনদেনের জন্য উপযোগী।

এছাড়াও প্রথম বছরের জন্য আপনি এটিএম মেশিনের মাধ্যমে যদি টাকা উত্তোলন করেন তাহলে কোন রকমের চার্জ প্রযোজ্য হবে না। একদম বিনামূল্যে টাকা উত্তোলন করতে পারবেন।

ডাচ বাংলা এজেন্ট ব্যাংকিং রেজিস্ট্রেশন

এবার আপনি যদি ডাচ বাংলা এজেন্ট ব্যাংকিং এর রেজিস্ট্রেশন কার্য সম্পাদন করতে চান, তাহলে যে সমস্ত ডকুমেন্টস এর প্রয়োজন হবে তা নিচে উল্লেখ করা হলো।

  1. দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের রঙ্গিন ছবি।
  2. নেশনালিটি প্রমাণের জন্য জাতীয় পরিচয় পত্র, ড্রাইভিং লাইসেন্স কিংবা পাসপোর্ট এর ফটোকপি।
  3. যে আপনার অ্যাকাউন্টের নমিনি হবে তার এক কপি ছবি এবং জাতীয় পরিচয় পত্র, ড্রাইভিং লাইসেন্স কিংবা পাসপোর্ট এর ফটোকপি।

মূলত উপরে উল্লেখিত ডকুমেন্টস এর সহকারে আপনি যদি ডাচ বাংলা ব্যাংকের যেকোন এজেন্ট প্রতিনিধির কাছে চলে যান, তাহলে একটি নতুন অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে সক্ষম হবেন।

এজেন্ট ব্যাংকিং এর লিমিট

আপনি যদি একটি এজেন্ট ব্যাংকিং একাউন্ট তৈরি করেন তাহলে এই এজেন্ট ব্যাংকিং একাউন্ট এর জন্য প্রতিদিন কিংবা প্রতিমাসের টাকার লিমিট সংখ্যা দেখে নেয়া প্রয়োজন।

ডাচ বাংলা ব্যাংকের অধীনে দুই রকমের এজেন্ট ব্যাংকিং একাউন্ট রয়েছে। একটি হল কারেন্ট একাউন্ট আর অন্যটি হলো সেভিংস একাউন্ট।

কারেন্ট অ্যাকাউন্ট সেভিংস একাউন্ট এর মধ্যে থেকে দুই রকমের একাউন্টের আপনি দুই রকমের লেনদেনের সুযোগ সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন।

কারেন্ট একাউন্ট এর লিমিট

  • প্রতিদিন আপনি ৪ বারে
  • ৬ লক্ষ টাকা জমা করতে পারবেন।
  • প্রতিদিন ২ বারে ৫ লক্ষ টাকা উত্তোলন করতে পারবেন।
  • ৪ বারে ১৫ লক্ষ টাকা উত্তোলন করতে পারবেন।

সেভিংস একাউন্ট লিমিট

  • প্রতিদিন ২ বারে এ ৪ লক্ষ টাকা ডিপোজিট করতে পারবেন।
  • দৈনিক ২ বারে ৩ লক্ষ টাকা উত্তোলন করতে পারবেন।

উপরে উল্লেখিত যে লিমিটেশন রয়েছে সেই লিমিটেশন এর মাধ্যমে আপনি এজেন্ট ব্যাংকিং একাউন্ট পরিচালনা করতে পারবেন এছাড়াও এটি ক্লিয়ারলি দেখে নেয়ার জন্য নিম্নলিখিত লিংক এ ক্লিক করুন।

চেক করুন

 

উপরে উল্লেখিত লিংকে ভিজিট করার মাধ্যমে আপনার এজেন্ট ব্যাংকিং একাউন্ট এর প্রতিদিনের লিমিট দেখে নিতে পারবেন।

আশাকরি ডাচ বাংলা ব্যাংক এজেন্ট ব্যাংকিং একাউন্ট সম্পর্কে পরিপূর্ণ জেনে নিতে পেরেছেন।

Leave a Comment