ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত |

ডাচ বাংলা ব্যাংক হলো বাংলাদেশকে লিডিং ব্যাংক। এই ব্যাংক একাউন্ট তৈরি করার বা খোলার নিয়ম একদম সহজ এবং অন্যান্য ব্যাংকের চেয়ে কম সময়ে করা সম্ভব।

এই আর্টিকেল এর মাধ্যমে আপনি পরিপূর্ণ জেনে নিতে পারবেন ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম এবং ডাচ বাংলা ব্যাংক সম্পর্কে সর্বাধিক তথ্য।

ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট এর প্রকারভেদ

ডাচ বাংলা ব্যাংকের অধীনে আপনি যদি ব্যাংক একাউন্ট তৈরী করতে চান, তাহলে দুই রকমের ব্যাংক একাউন্ট এর সুযোগ সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন।

  1. স্টুডেন্ট একাউন্ট এবং সেভিং একাউন্ট।
  2. ডাচ বাংলা ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট।

তাহলে আর দেরি না করে এখনি জেনে নিন এই দুই রকমের অ্যাকাউন্ট তৈরি করার জন্য যে সমস্ত রিকয়ারমেন্ট এর প্রয়োজন হবে এবং এই এরকম একাউন্টে সুযোগ সুবিধা সম্পর্কে।

ডাচ বাংলা ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট তৈরি করার নিয়ম

মূলত একজন ছাত্র হিসেবে আপনি যদি আপনার স্টুডেন্ট এর বিভিন্ন কার্যক্রম সম্পাদনের জন্য ডাচ বাংলা ব্যাংকের অধীনে একাউন্ট তৈরী করতে চান। তাহলে স্টুডেন্ট একাউন্ট তৈরি করতে পারেন।

একটি স্টুডেন্ট একাউন্ট তৈরি করার ক্ষেত্রে আপনাকে খুব বেশি পরিমাণে রিকোয়ারমেন্ট সংগ্রহের প্রয়োজন হয়না। তাছাড়াও এতে নানা রকমের সুযোগ-সুবিধা রয়েছে।

ডাচ বাংলা ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট তৈরি করার জন্য যে সমস্ত বিষয়াদির প্রয়োজন হবে সেগুলো নিচে মেনশন করা হলো।

  • সদ্যতোলা আপনার দুই কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি।
  • আপনার সর্বশেষ স্কুলের বেতনের স্লিপ।( অনার্স পড়ুয়া হলে আপনি স্টুডেন্ট একাউন্ট তৈরী করতে পারবেন না)
  • একজন নমিনি এর প্রয়োজন হবে। নমিনির এক কপি ছবি এবং জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি প্রয়োজন হবে।
  • শনাক্তকরণের ক্ষেত্রে একজন ব্যক্তির প্রয়োজন হবে। ওই ব্যক্তির এক কপি ছবি এবং জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি প্রয়োজন।
  • ১০০ কিংবা ৫০০ টাকা ব্যাংকে জমা রাখতে হবে।

সনাক্তকরণ এক্ষেত্রে বা পূর্বের যার ব্যাংক এ অ্যাকাউন্ট রয়েছে সেই রকম কোন ব্যক্তি খুঁজে না পেলে, ব্যাংকে উপস্থিত হওয়ার মাধ্যমে আপনি এরকম ব্যক্তি খুঁজে পাবেন।

এবার যখনই আপনি এই সমস্ত ডকুমেন্ট সংগ্রহ করে নিবেন তখন আপনাকে ডাচ-বাংলা ব্যাংকের যে কোন শাখায় উপস্থিত হতে হবে। এখানে একটি রেজিস্ট্রেশন ফরম পূরণ করতে হবে।

তবে আপনি চাইলে নিম্নলিখিত লিংক এর মাধ্যমে ডাচ বাংলা ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট তৈরি করার জন্য যে রেজিস্ট্রেশন ফরম রয়েছে সেটি ডাউনলোড করে নিতে পারেন।

ফরম ডাউনলোড করুন

 

উপরে উল্লেখিত লিংক থেকে স্টুডেন্ট একাউন্ট তৈরীর ফর্ম ডাউনলোড সম্পন্ন করে নিলে, এই ফরম প্রিন্ট আউট করে ফিলাপ করে নিন।

এবং তারপরে অন্যান্য যে সমস্ত ডকুমেন্ট রয়েছে সে সমস্ত ডকুমেন্টস এর সমন্বয়ে আপনার আশেপাশে থাকা ডাচ বাংলা ব্যাংকের যে কোন শাখায় উপস্থিত হন।

যদি আপনার ডকুমেন্টস এবং এই রেজিস্ট্রেশন ফরম এর সমস্ত ইনফরমেশন গুলো ঠিক থাকে তাহলে তারা আপনার এই রেজিস্ট্রেশন ফরম সংগ্রহ করে রাখবে এবং আপনাকে একটি নেক্সাস পে কার্ড ফ্রিতে দিয়ে দিবে।

মূলত আপনার ডাচ বাংলা ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট তৈরি করার পরে একাউন্ট একটিভেট হতে দুই থেকে তিন দিন সময় নিতে পারে।

যখনই আপনার একাউন্ট এক্টিভেট হয়ে যাবে তখন এসএমএস এর মাধ্যমে আপনাকে জানিয়ে দেয়া হবে।

এছাড়াও এই এসএমএস এর মাধ্যমে আপনাকে ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট নাম্বার প্রদান করা হবে। যে অ্যাকাউন্ট নাম্বার আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নাম্বার হিসেবে গণ্য হবে।

ডাচ বাংলা ব্যাংক সেভিংস একাউন্ট তৈরি করার নিয়ম

ডাচ বাংলা ব্যাংকের অধীনে আপনার ব্যবসায়িক কার্যক্রম পরিচালনা করার জন্য এবং বিভিন্ন সুবিধা ভোগের জন্য ডাচ বাংলা ব্যাংক সেভিং একাউন্ট তৈরি করতে পারেন।

স্টুডেন্ট একাউন্ট এ কিছু লিমিটেশন রয়েছে কিন্তু ডাচ বাংলা ব্যাংক সেভিংস একাউন্টে কোন রকমে লিমিটেশন নেই। আপনি চাইলে লিমিটেশন এর মধ্যেও আনলিমিটেড ট্রানজেকশন করতে পারবেন।

তাহলে আর দেরি না করে এখনি দেখে নিন ডাচ বাংলা ব্যাংকের সেভিংস একাউন্ট তৈরি করতে যে সমস্ত ডকুমেন্টস প্রয়োজন হবে সেগুলো সম্পর্কে।

সেভিংস একাউন্ট তৈরীর ডকুমেন্ট

  • সদ্য তোলা পাসপোর্ট সাইজের ২ কপি রঙিন ছবি।
  • জাতীয় পরিচয় পত্র ড্রাইভিং লাইসেন্স কিংবা অন্যান্য যে কোন জাতীয় সনদপত্র।
  • ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠান ট্রেড লাইসেন্স কিংবা e-tin সার্টিফিকেট।
  • একজন নমিনি নির্বাচন এবং ওই ব্যক্তির এক কপি রঙ্গিন সাইজের ছবি আর জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি।
  • পূর্বে থেকে ব্যাংক একাউন্ট রয়েছে রকম একজন ব্যক্তি সনাক্তকরণ এবং তার এক কপি রঙ্গিন পাসপোর্ট সাইজ ছবি সহ জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি।
  • একাউন্ট তৈরীর ক্ষেত্রে ৫০০ টাকা জমা রাখতে হবে।

যখনই আপনি উপরে উল্লেখিত ডকুমেন্টস সম্পর্কে নিশ্চিত হয়ে যাবেন তখন আপনি চাইলে ডাচ-বাংলা ব্যাংকের যে কোন একটি শাখায় উপস্থিত হতে পারেন এবং একটি ফরম ফিলাপের মাধ্যমে অ্যাকাউন্ট তৈরি সম্পন্ন করতে পারেন।

তবে ঘরে বসেই আপনি চাইলে এই ফরম ফিলাপ করে আপনার আশেপাশে থাকা ডাচ বাংলা ব্যাংকের শাখায় এটি পৌঁছে দিতে পারেন।

ফরম ডাউনলোড করুন

 

উপরে উল্লেখিত লিংক থেকে এই ফর্ম ডাউনলোড করা সম্পন্ন হয়ে গেলে ফরমটি প্রিন্ট আউট করে তারপরে ফিলাপ করে নিন এবং তারপরে নিকটস্থ ব্যাংকে যোগাযোগ করুন।

মূলত স্টুডেন্ট একাউন্ট এর মত সেভিংস একাউন্টে আপনি একটি নেক্সাস পে কার্ড উপহার পাবেন, যার মাধ্যমে এটিএম বুথের মাধ্যমে টাকা তোলা সম্ভব।

ডাচ বাংলা ব্যাংক সেভিংস একাউন্ট তৈরি করার ক্ষেত্রেও আপনার একাউন্ট এক্টিভেট হতে দুই থেকে তিন দিন সময় নিতে পারে।

একাউন্ট এক্টিভেট হলে কনফার্মেশন মেসেজ এর মাধ্যমে জানিয়ে দেয়া হবে।

আর উপরে উল্লেখিত উপায়ে আপনি চাইলে খুব সহজেই ডাচ বাংলা ব্যাংকের অধীনে যে দুইটি অ্যাকাউন্ট রয়েছে দুই রকমের অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারবেন।

স্টুডেন্ট একাউন্ট এর লিমিট

ডাচ বাংলা ব্যাংকের অধীনে একটি স্টুডেন্ট একাউন্ট তৈরি করার পরেই স্টুডেন্ট একাউন্ট এর যে লিমিটেশন রয়েছে; সেগুলো আপনাকে মেনে চলতে হবে।

নিম্নরূপে ডাচ বাংলা ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট এর লিমিটেশন সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

  1. স্টুডেন্ট একাউন্ট প্রতি মাসে সর্বোচ্চ ২ লক্ষ টাকা যুক্ত করা যাবে এবং উইথড্র করা যাবে।
  2. স্টুডেন্ট একাউন্ট থেকে প্রতিদিন সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা উত্তোলন করা যাবে।
  3. প্রতিদিন সর্বোচ্চ ৫ বার এটিএম কার্ডের মাধ্যমে টাকা উত্তোলন করা যাবে।

সেভিংস একাউন্ট এর লিমিটেশন

এবার জেনে নিন ডাচ বাংলা ব্যাংকের সেভিংস একাউন্ট তৈরি করলে যে সমস্ত লিমিটেশন মেনে চলতে হবে সেগুলো সম্পর্কে।

ডাচ বাংলা ব্যাংক সেভিংস একাউন্ট তৈরি করার ক্ষেত্রে বিভিন্ন রকমের মেনটেনেন্স চার্জ সহ আরো অন্যান্য রকমের ফ্রী প্রযোজ্য হতে পারে।

যার কারণে ডাচ বাংলা ব্যাংক সেভিংস একাউন্টে লিমিটেশন সম্পর্কে কিংবা এই সংক্রান্ত বিভিন্ন জটিলতা সম্পর্কে জেনে নেয়ার জন্য কাস্টমার কেয়ারে কল দেয়া প্রয়োজন।

এ সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জেনে নেয়ার জন্য নিম্নলিখিত নাম্বারে কল করার মাধ্যমে অবগত হয়ে যান।

কেয়ার নাম্বার বাংলা ব্যাংক ডাচ বাংলা ব্যাংক কাস্টমার কেয়ার

ডাচ বাংলা ব্যাংক কাস্টমার কেয়ার নাম্বার
16216

উপরে উল্লেখিত ডাচ বাংলা ব্যাংক কাস্টমার কেয়ার নাম্বার এ কল করার মাধ্যমে ডাচ বাংলা ব্যাংকের সেভিংস একাউন্ট সংক্রান্ত লিমিটেশন কিংবা অন্যান্য যাবতীয় ডিটেইলস জেনে নিতে পারবেন।

2 thoughts on “ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত |”

  1. DBBL স্টুডেন্ট একাউন্ট এ টাকা জমা রাখব কিভাবে?
    ব্যাংক বা ব্যাংকের কোনো ব্যাঞ্চে না গিয়ে টাকা জমা রাখার অন্য কোনো উপায় আছে কি?

    1. এ কাজটি করার জন্য বাধ্যতা মুলক ব্যাংকের যেকোন শাখায় যেতে হবে। অথবা 16216 এই নাম্বারে কল করে আরো বিস্তারিত তথ্য জেনে নিবেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top